বিজ্ঞান লেকচারে যা থাকবে !!!


শিশু কিশোরদের মনে হাজারো প্রশ্ন উকি দেয়। মনে করুন আপনি তাদের সামনে বিজ্ঞান নিয়ে কথা বলবেন। কিভাবে তাদের মন জয় কি করবেন? কি থাকতে পারে একটি সফল বিজ্ঞান লেকচারে?? একটি নমুনা লেকচার দেওয়া হল।

                                                     বিজ্ঞান কি?
সাধারণত চোখের সামনে যা ভেসে আসে…..
১) বিশাল গবেষণাগার??
২) জটিল যন্ত্রপাতি??
৩) মোটা মোটা বই?
৪) মাাথায় ঝঁকড়া চুলের একজন ব্যক্তির একমনে কাজ কর??
তাহলে !!
আমাদের চারপাশের জগৎ নিয়ে ভাবনা ও তার উত্তর খুজে বের করা।
কোন বিষয়ের রহস্য অনুসন্ধান
কোন বিষয়ের ক্রিয়া, তার প্রয়োগ সম্পর্কে বিস্তর জ্ঞান
এককথায় আমাদের চারপাশের সকল বিষয় অনুসন্ধান ————
যেমন, কেন মানুষ দেখতে এমন? ঊানর কেন মানুষের মত আচরণ করে?
তোমার মাথার চুল কাল কেন? হাত, পা, চোখ, মুখ ভিন্ন আকৃতির কেন?
আকাশ কেন নীল? এমন অসংখ্য প্রশ্নের উত্তর অনুসন্ধান

                                            বিজ্ঞানের ইতিহাস
১) প্রাচীন পৃথিবীতে মানুষের বিচরণ
২) বন জঙ্গলে বসবাসের প্রকৃতি
৩) উদ্ভিদের উপর নির্ভরশীল মানুষ
৪) আগুন জ্বালানো শেখা
৫) পাথরের ব্যবহার
৬) প্রাণী শিকার
৭) প্রাণী বেঁধে রেখে পশুপালন
৮) আবাসস্থলের পাশে চাষাবাস
৯) আকাশের দিকে তাকিয়ে তারকাদের আনাগোনা পর্যবেক্ষন ও সে অনুযায় পথ চলা
১০) পূর্ণিমাকে আশির্বাদ ও আমাবস্যাকে অভিশাপ মনে করা
১১) প্রত্যেক ঘটনার পিছনে বিভিন্ন দেবতার প্রভাব
১২) প্রত্যেকটা ঘটনার পিছনে কারণ অনুসন্ধা (প্রশ্নের যাত্রা শুরু)
১৩) এরিসটটলের হাজারো প্রশ্ন (দর্শনের যাত্রা শুরু)
১৪) গ্যালিলিওয়ের খালিচোখে আকাশের দিকে চেয়ে থাকা ( যে কারণে অন্ধ হয়ে যান)
১৫) অনুবীক্ষণ যন্ত্রের যাত্রা শুরু (সাধারণ কাঁচ থেকে)
১৬) কণার রহস্য উন্মোচন, ইলেক্ট্রনের ধর্ম অনুসন্ধান
১৭) টেলিস্কোপের যাত্রা শুরু
১৮) গবেষনাগারে বিভিন্ন বিষয় প্রমাণের চেষ্টা
১৯) বিদ্যুতের আবিষ্কার
২০) টেলিফোন আবিষ্কার
২১) কম্পিউটার আবিষ্কার
২২) রকেট বিজ্ঞানের যাত্রা শুরু
২৩) উপগ্রহের যাত্রা
২৪) অন্য গ্রহে পাড়ি দেওয়ার চেষ্টা (১৯৫৭ সালে সফল ভাবে পৃথিবীর কক্ষপথ ঘুরে আসা, চন্দ্রপৃষ্টে মানুষের সফল পদার্পণ,মঙ্গলে সফল গবেষণা-বর্তমানে কিওরিওসিটি, মঙ্গলযান গবেষণা করছে)
২৫) নতুন গ্রহে বাস করার চেষ্টা..ছেড়ে যেতে চাই আমাদের প্রিয় পৃথিবী গ্রহ

                                তুমি কিভাবে বিজ্ঞানী হবে?
(বিজ্ঞান ভীতি দুর করার কথা বলতে হবে)
ধাপ:
১) দর্শন—
২) পর্যবেক্ষণ
৩) প্রশ্ন করা
৪) উত্তর জানতে বই, শিক্ষক, অভিভাবকের সাহায্য নেওয়া
৫) বিষয়ের সাথে সম্পর্কযুক্ত সম্ভাব্য বিভিন্ন ঘটনা ধারণা করা
৬) ধারণা করা বিষয়গুলো সম্পর্কে জানা ও তার সাথে সম্পর্ক তৈরী করার চেষ্টা করে
৭) গবেষণাগারে (তোমার স্কুলের ল্যাব হতে পারে) যাচাই করা
তবে আপাতত তোমার জন্য প্রথম চারটি ধাপ নিয়ে কাজ করা যথেষ্ট। এর মাধ্যমে পছন্দের বিষয় খুঁজে পাবে ও সে বিষয়ে পড়াশোনা করতে পারবে।
                                        বাংলাদেশে বিজ্ঞানী
১) স্যার জগদীশ চন্দ্র বসু
-উদ্ভিদ উদ্দীপনায় সাড়া দেয় অর্থাৎ গাছের জীবন আছে।
-তিনি কি জীববিজ্ঞানী ছিলেন?? না পদার্থবিজ্ঞানের বিষয় নিয়ে গবেষণা করছিলেন।
-সূর্য থেকে একটি রশ্মি উৎপন্ন হয়ে তা বিভিন্ন পরিবেশে তরঙ্গদৈর্ঘ্য পরিবর্তনের মাধ্যমে পর্যায়ক্রমে কসমিক রশ্মি, আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি, দৃশ্যমান আলো, অবলোহিত রশ্মি, ইলেক্ট্রন রশ্মিতে পরিণত হয় (সর্বপ্রথম তিনি এই তত্ত্ব দেন)
-রেডিও উদ্ভাবন করেন
২) সত্যেন্দ্রনাথ বসু
-কণার শ্রেণীবিভাবগ করেন। পৃথিবীর সকল কণা দুইভাগে বিভক্ত। ফার্মিয়ার ও বোসন কণা। এই সেই বোসন কণা যা আমাদের সত্যেন্দ্রনাথ বসু দেন।
-বোসন-আইনস্টাইন পরিসংখ্যানের জনক
-সম্প্রতি আবিষ্কৃত হিগস-বোসন কণা (গড পার্টিকেল, এটি বিজ্ঞানীদের দেওয়া নাম নয়, নামের ইতিহাস বলতে হবে)
৩) আব্দুল জব্বার
-রাতের পর রাত আকাশের দিকে তাকিয়ে তারাদের উপস্থিতি ও অবস্থান নির্ণয় করেছেন।
-একটি বই আছে “তারা পরিচিতি”-বাংলাদেশ এস্ট্রোনোমিক্যাল এসোসিয়েশন সম্পাদিত
৪) মেঘনাদ সাহা
-সফল বিজ্ঞান লেখক, গাজীপুরে জন্ম
এছাড়াও জাহিদ হোসেন, স্যার হুইসসাম সহ অনেকে

                                                      বিজ্ঞানে নারী
১) হাইপেশিয়া— আলেকজান্দ্রিয়ার গণিতবদি, যিনি সম্মানীর বিনিময়ে বক্তৃতা দিতেন
২) মাদাম কুরী- রসায়ন ও পদার্থে নোবেল পান, সারা জীবন গবেষণায় কাটিয়েছেন
৩) রোজালিন ফ্রাংকলিন-সফল ডি.এন.এর উদ্ভাবক, কোন সম্মান পান নি
৪) ডলস মিটনার-নিউক্লিয়ার ফিশান নিয়ে গবেষণা, যা থেকে পরবর্তিতে পারমাণবিক বোমা

                                                বিজ্ঞানের মজার ঘটনা
১) আইনস্টাইনের ড্রাইভারের গল্প
২) প্রশ্ন জানতে টমাস আলভা এডিসনের খড়ের গাদায় আগুন ধরিয়ে দেওয়া
৩) কথা না বলায় আইনস্টাইনের স্কুল থেকে বিতারণ, ৭বছর বয়সে কম্পাসের কারণ জানতে বাবাকে জালাতন
৪) পেনিসিলিয়াম আবিষ্কারের গল্প-Inventor: Alexander Fleming Year: 1928 What Happened: Halfway through an experiment with bacteria, Alexander Fleming up and went on vacation. Slob that he was, he left a dirty petri dish in the lab sink. Big Discovery: When he got back, he found bacteria had grown all over the plate, except in an area where mold had formed. As a Result: That discovery led to two things: 1) penicillin and 2) Mrs. Fleming hiring a maid.
৫) নিজের অজান্তে স্যাকারিন আবিষ্কার

Inventors: Constantin Fahlberg and Ira Remsen Year: 1879What Happened: After spending the day studying coal tar derivatives, Fahlberg left his Johns Hopkins laboratory and went to dinner. Big Discovery: Something he ate tasted particularly sweet, which he traced to a chemical compound he’d spilled on his hand. Best of all, it turned out to be calorie-free. As a Result: He cut Remsen and the university out of millions of dollars when he secretly patented the breakthrough discovery, saccharin.
৬) গণিতবিদ রামানুজানের সমুদ্র পাড়ি দিতে বাধা-জাত যাবে তাই (মায়ের বক্তব্য)
৭) চুইংগাম আবিষ্কারের কাহিনী

Inventor: Thomas Adams Year: 1870 What Happened: He was experimenting with chicle, the sap from a South American tree, as a substitute for rubber. After mounting failures, the dejected inventor popped a piece into his mouth. Big Discovery: He liked it! As a Result: Adams New York No. 1 became the first mass-produced chewing gum in the world.
                       কিভাবে বিজ্ঞান প্রজেক্ট তৈরী করবে??
১)কোন একটি নির্দিষ্ট ক্যাটাগরি বিবেচনা (রসায়ন, পদার্থ,জীববিজ্ঞান)
২) এর প্রয়োগ ও মানুষের জন্য এর প্রয়োজনীয়তা বিবেচনা
৩) টাইটেল নির্ধারণ
৪) এর আওতায় প্রতিটি ধাপ বিশ্লেষণ
৫) প্রতিটি ধাপের সঠিক পড়াশোনা ও মৌলিক বিষয় জানা
৬) এ্কই জাতীয় অসংখ্য প্রোজেক্ট ইন্টারনেট থেকে জানা
৭) এবার তোমার প্রজেক্টেও প্রতিটি ধাপ সফলভাবে সম্পন্ন করে সংযুক্ত করা
৮) একটি ভৌত কাঠামো দাড় করানো ( এটি প্রদর্শন করতে হবে)
৯) উপস্থাপনের জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ
এনে রাখবে, বিজ্ঞান প্রজেক্টে তোমার কাছে কোন সফল গবেষনা চাওয়া হয় না কারণ তুমি গবেষক নও, এখানে তোমার ভাবনা ও সেই সাথে তোমার ভাবনর সাথে তোমার জ্ঞান ও বাস্তবতা দেখা হয়। তাই তোমাকে প্রতিটি বিষয়ে স্বচ্ছ ধারণা থাকতে হবে। আর মনে রাখবে বিজ্ঞান আবেগের জায়গা নয়। তাই প্রত্যেক ঘটনার সঠিক কারণ তোমাকে জানতে হবে। শিক্ষক বা অভিভাবকের সাহায্য নিতে পার। তবে তোমাকে তোমার প্রজেক্টেও প্রতিটি বিষয় জানা থাকতে হবে।
যে বিষয়ে খেয়াল রাখবে—
ক) প্রজেক্টের টাইটেল
খ) প্রজেক্টের উদ্দেশ্য
গ) বৈজ্ঞানিক প্রয়োগ
ঘ) সঠিক বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি অনুসরণ
ঙ) সুন্দর একটি উপসংহার বা উপস্থাপনা

 

উত্তর প্রদান করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s